কুমিল্লা ও রংপুরের ঘটনায় সামাজিক ও ধর্মীয় সম্প্রীতি ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে : সংস্কৃতিক প্রতিমন্ত্রী - বরিশালের খবর-Barishaler Khobor

বাংলাদেশ, ৮ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, রোববার, ২২ মে ২০২২

কুমিল্লা ও রংপুরের ঘটনায় সামাজিক ও ধর্মীয় সম্প্রীতি ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে : সংস্কৃতিক প্রতিমন্ত্রী - বরিশালের খবর-Barishaler Khobor

আরও ৩ দিন অব্যাহত থাকতে পারে বৃষ্টি স্বর্ণের ভরি ছাড়ালো ৮২ হাজার ৪৬৪ টাকা! বিএনপি কখনোই তত্ত্বাবধায়ক সরকারে বিশ্বাসী নয়: আমু কর্মঘন্টা নস্ট করে বিদ্যুত লাইনে সংস্কার ভোগান্তিতে বরিশাল নগরীর কয়েক লাখ বাসিন্দা বৈশ্বিক সংকট মোকাবিলায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৪ দফা প্রস্তাব যদি আমি আপনাদের জন্য কিছু করে থাকি প্রয়োজন হলে আমাকে ভোট দিবেন : মেয়র সাদিক আবদুল্লাহ অংশগ্রহণমূলক সুষ্ঠু ‘নির্বাচন করতে সম্ভাব্য সব ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে’ জাতীয় নির্বাচনে বিচারিক ক্ষমতা দিয়ে সশস্ত্র বাহিনী মোতায়েনের দাবি জানিয়েছেন চরমোনাই পীর বরিশালে ভোটার হালনাগাদ শুরু, নতুন ভোটার হতে পেরে খুশি তরুনরা আজকের বাজারে দাম বেড়েছে বাজারের প্রায় সব পণ্যের!


কুমিল্লা ও রংপুরের ঘটনায় সামাজিক ও ধর্মীয় সম্প্রীতি ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে : সংস্কৃতিক প্রতিমন্ত্রী

প্রকাশ: ৪ মার্চ, ২০২২ ৮:২৬ : অপরাহ্ণ

বরিশালের খবর ডেস্ক : সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কেএম খালিদ এমপি বলেছেন, আমাদের দেশে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির জায়গাটা কিছুটা নস্ট হয়েছে। গত দুর্গাপূজার সময় কুমিল্লায় এবং রংপুরে যে ঘটনা ঘটেছে সেখানে আমাদের সামাজিক বন্ধন, ধর্মে ধর্মে বন্ধন খানিকটা ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। শুক্রবার (৪ মার্চ) বিকেলে বরিশালে ৫ দিনব্যাপী বিভাগীয় পিঠা উৎসব উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন তিনি।

জেলা শিল্পকলা একাডেমীতে জাতীয় পিঠা উৎসব উদযাপন পরিষদ জেলা কমিটির আয়োজনে ও সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের পৃষ্ঠপোষকতায় ৫ দিন ব্যাপী এই উৎসবের উদ্বোধন হয়।

প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন, বৈশ্বিক মহামারী করোনায় স্বাভাবিক কর্মকান্ড বিঘ্নিত হছে। সাংস্কৃতিক কর্মকান্ড স্থবির হয়ে পড়েছে। সংক্রামন নিয়ন্ত্রন আসায় ফের সাংস্কৃতিক কর্মকান্ড বেগবান করা হয়েছে। এর অংশ হিসেবে ঢাকা সহ সারা দেশে পিঠা উৎসবের আয়োজন করা হয়েছে। লোকজ সাংস্কৃতি ফিরিয়ে আনতে সারা দেশে পর্যায়ক্রমে পিঠা উৎসবের আয়োজন করার কথা বলেন প্রতিমন্ত্রী।

অনুষ্ঠানের উদ্বোধক জাতীয় পিঠা উৎসব আয়োজক কমিটির কেন্দ্রিয় সভাপতি ও বাংলাদেশ টেলিভিশনের সাবেক মহাপরিচালক এবং নাট্য ব্যক্তিত্ব ম. হামিদ বলেন, পিঠা একটি বড় শিল্প; কিন্তু সেটা বাণিজ্যিকভাবে ব্যবহার হচ্ছে না। নতুন প্রজন্মকে পিঠার সাথে পরিচিত করতে সারাদেশে প্রতি বছর পিঠা উৎসবের আয়োজন করা হবে। অন্যান্য ফাস্ট ফুডের মতো জেলায় জেলায় পিঠার দোকান করতে সকলের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে জাতীয় পিঠা উৎসব উদযাপন পরিষদ জেলা কমিটির আহ্বায়ক শুভংকর চক্রবর্তী ও জেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক তালুকদার মোঃ ইউনুস সহ সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

উৎসবে অংশগ্রহনকারী উদ্যোক্তা জাহানারা পারভীন অনা বলেন, পিঠার বানিজ্যিক রূপ দিতে পারলে নারীদের জন্য একটা বড় প্লাটফরম হবে। এ জন্য সরকারের পৃষ্ঠপোষকতা দাবী করেন তিনি।

গ্রামগঞ্জের হারিয়ে যাওয়া পিঠাকে নতুন করে মাঝে ছড়িয়ে দিতে এই আয়োজন গুরুত্বপূর্ন ভূমিকা রাখবে বলে প্রত্যাশা করেন অন্যান্য অংশগ্রহনকারী উদ্যোক্তা ও দর্শনার্থীরা।

আয়োজক কমিটির স্থানীয় আহবায়ক শুভঙ্কর চক্রবর্তী জানান, গতকাল শুক্রবার উদ্বোধন হওয়া এই উৎসব আগামী ৮ মার্চ পর্যন্ত চলবে। প্রতিদিন বিকেল ৩টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত মেলায় পিঠা তৈরি, প্রদর্শনী ও বিক্রি করা হবে। বিকেল ৫টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত রয়েছে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। উৎসবে ২০ টি স্টলে বরিশাল সহ দেশের বিভিন্ন স্থানের নানা রকমের পিঠা পাওয়া যাচ্ছে। ব্যক্তি, সংগঠন এবং প্রতিষ্ঠান পর্যায়ের স্টল রয়েছে মেলায়।

সূত্র : বাংলাদেশ প্রতিদিন

সকল নিউজ