বরিশাল মহানগর বিএনপি’র কমিটিতে সরোয়ারকে হটিয়ে আলোচনায় দলে নিস্ক্রিয় কামাল - বরিশালের খবর-Barishaler Khobor

বাংলাদেশ, ১১ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, রোববার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১

বরিশাল মহানগর বিএনপি’র কমিটিতে সরোয়ারকে হটিয়ে আলোচনায় দলে নিস্ক্রিয় কামাল - বরিশালের খবর-Barishaler Khobor

শুক্রবার সরকারি হাসপাতালে ডাক্তার না থাকার পক্ষে স্বাস্থ্য মহাপরিচালকের সাফাই বরিশালে করোনায় ১৮ মাসে ১৩৭৯ জন রোগীর মৃত্যু ডিসেম্বরের মধ্যে দেশের অর্ধেকেরও বেশী মানুষকে টিকার আওতায় আনা হবে : স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের সিনিয়র সচিব নিউইয়র্ক থেকে ওয়াশিংটনের উদ্দেশে শেখ হাসিনা টাকা দিয়ে মানুষের মন কেনা যায় না : আইজিপি দাম কমেছে চাল-চিনির শেবাচিমে শুক্রবার ইনডোর ওয়ার্ডে ডাক্তার থাকে না বাইরে দুই বেলা প্রাইভেট প্রাকটিস প্রবল বেগে আসছে ঘূর্ণিঝড় ‘গুলাব’ এখনও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধের মতো কোনো পরিস্থিতি হয়নি: শিক্ষামন্ত্রী আমরা এখন ভয়াবহ দুঃসময় অতিক্রম করছি : ফখরুল


বরিশাল মহানগর বিএনপি’র কমিটিতে সরোয়ারকে হটিয়ে আলোচনায় দলে নিস্ক্রিয় কামাল

প্রকাশ: ১০ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ১০:২৭ : অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক : এক বছর ধরে গুঞ্জন মহানগর বিএনপি’র কমিটি ভেঙ্গে দিয়ে নতুন কমিটি হবে। পাল্টানো হবে শীর্ষ নেতৃত্ব। কিন্তু কমিটি হচ্ছে না। আর এই সুযোগে গত ১ যুগ ধরে দলে নিস্ক্রিয়, দুর্নীতি মামলায় দন্ডপ্রাপ্ত এবং জনবিচ্ছিন্ন কিছু নেতা লন্ডনে লবিং তদবির করছেন মহানগর বিএনপি’র শীর্ষ দুই পদ পেতে। লন্ডনে মোটা অংকের অর্থ দিয়ে তারা মহানগর বিএনপি’র পদ বাগানোর চেস্টা করছেন। এদিকে দলে নিস্ক্রিয় ও দুর্নীতি মামলায় দন্ডিতদের মহানগর বিএনপির নেতৃত্ব দেখতে চাননা তৃনমূল নেতাকর্মীরা। তারা দলের জন্য ত্যাগী, নিবেদিতপ্রান ও কর্মীবান্ধব নেতাদের হাতে দায়িত্ব তুলে দেয়ার দাবি জানিয়েছেন।

২০১৩ ও ২০১৪ সালে সরকার বিরোধী আন্দোলনে মহানগর বিএনপি’র সভাপতি, সাবেক মেয়র ও সাবেক এমপি মজিবর রহমান সরোয়ারের ভূমিকায় নখোশ লন্ডনে নির্বাসিত বিএনপি’র ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান। তখন থেকেই মহানগর বিএনপি থেকে সরোয়ারকে মাইনাসের গুঞ্জন ছিলো। দলের নানা অভ্যন্তরীন সংকটের কারনে সেই উদ্যোগ থমকে যায়। সব শেষ গত বছরের শেষ দিকে মহানগর বিএনপি’র নতুন কমিটি গঠনের খবর ছড়িয়ে পড়ে। তখন সরোয়ারের বিকল্প হিসেবে গত ১ যুগ বিএনপি’র আন্দোলন সহ অন্যান্য কর্মসূচীতে নিস্প্রভ সাবেক মেয়র আহসান হাবিব কামালের নাম উচ্চারিত হয় জোড়ালোভাবে। এ অবস্থায় একটি দুর্নীতি মামলায় গত বছরের ৯ নভেম্বর কামালের ৭ বছর কারাদন্ড হলে আবারও থমকে যায় কমিটি গঠন প্রক্রিয়া। প্রায় ১০ মাস পর গত ৬ সেপ্টেম্বর কামাল জামিনে মুক্তি পেলে আবার আলোচনায় আসে মহানগর বিএনপি’র কমিটি গঠন।

সরোয়ারকে সরিয়ে কামালকে মহানগর বিএনপি’র শীর্ষ পদ দেয়ার গুঞ্জন আছে সর্বত্র। কিন্তু বয়স এবং নানা রোগে আক্রান্ত কামালকে অনেকে ‘প্রতিবন্ধি’ বলেও উপহাস করেন। শারীরিক অসুস্থ ও দলে নিস্ক্রিয় কামালকে মহানগর বিএনপি’র শীর্ষ পদে দেখতে অনীহা মাঠের নেতাকর্মীদের। সে ক্ষেত্রে মহানগর বিএনপি’র শীর্ষ পদে বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক বিলকিস জাহান শিরিনের নামও উচ্চারিত হচ্ছে। মতের বিরোধীতা থাকলেও বরিশালে সরোয়ারের বিকল্প তৈরী হয়নি বলে অকপটে স্বীকার করেন অনেক নেতা। লন্ডনের বিবেচনায় ফের সরোয়ার কিংবা শিরিন নেতৃত্ব না পেলে মহানগর বিএনপি’র সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক আলী হায়দার বাবুলও শীর্ষ পদের আলোচনায় আছেন। বর্তমান সহসভাপতি জাতীয় পার্টি থেকে আগত মনিরুজ্জামান ফারুকও শীর্ষ পদের প্রার্থী।

এদিকে মহানগর বিএনপি’র দ্বিতীয় সর্বোচ্চ পদে আলোচনার শীর্ষে আছেন গত এক যুগে সরকার বিরোধী আন্দোলনে ৫২ টি মামলার আসামী বর্তমান ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদক সাবেক ওয়ার্ড কাউন্সিলর জিয়াউদ্দিন সিকদার জিয়া। তবে সরোয়ার অনুসারী হওয়ায় ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের অপছন্দে কপাল পুড়তে পারে জিয়ার। যদিও মহানগরে দলের সকল কর্মসূচী বাস্তবায়নে জিয়া অদ্বিতীয়। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ পদে আরও আলোচনায় আছেন বিগত আন্দোলন সংগ্রাম এবং দলের কর্মসূচী এড়িয়ে চলা মহানগর বিএনপি’র বর্তমান সহসভাপতি মহসিন মন্টু। যিনি আওয়ামী লীগের ব্যানারে নির্বাচিত জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি এবং বর্তমান অতিরিক্ত পিপি মজিবর রহমানের ভাই। এছাড়া মহানগর যুবদলের সভাপতি আক্তারুজ্জামান শামীমও আছেন দ্বিতীয় শীর্ষ পদের আলোচনায়। তবে ছাত্রদল নেতা কালু ও মিরাজ গুম হওয়ার পেছনে শামীমের হাত আছে বলে কেন্দ্রে অভিযোগ দিয়েছে তার প্রতিদ্বন্ধিরা।

মহানগর বিএনপি’র কমিটি গঠনের বিষয়ে বরিশাল বিভাগের সাংগঠনিক দায়িত্বপ্রাপ্ত দলের ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল আউয়াল মিন্টু বলেন, স্থানীয় নেতাকর্মীদের পালর্স বুঝে সবার সাথে আলোচনা করে সম্ভাব্য নেতাদের একটি তালিকা ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান ও মহাসচিবের কাছে দেয়া হয়েছে। তারা যখন উপযুক্ত মনে করবেন তখন আহ্বায়ক কমিটি ঘোষনা দেবেন। মিন্টু আরও বলেন, কাউকে বাদ দেয়া বা কাউকে পদে বসানো নতুন কমিটি গঠনের উদ্দেশ্যে নয়। বিগত দিনে দলের প্রতি ত্যাগ, নেতাকর্মীদের মাঝে গ্রহনযোগ্যতা ও নেতৃত্বগুন এবং আগামী দিনে আন্দোলন ও জাতীয় নির্বাচনে যারা দলের হয়ে ভূমিকা রাখতে পারবেন তাদের হাতেই তুলে দেয়া হবে মহানগর বিএনপি’র দায়িত্ব।

মজিবর রহমান সরোয়ারকে সভাপতি এবং কামরুল আহসান শাহিনকে সাধারন সম্পাদক করে মহানগর বিএনপি’র ৩ বছর মেয়াদী সব শেষ ১৭১ সদস্যের কমিটি অনুমোদন হয় ২০১৩ সালের ৫ অক্টোবর। ২০১৪ সালের ২২ নভেম্বর শাহিনের মৃত্যুর পর থেকে সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক জিয়াউদ্দিন সিকদার জিয়া ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

সকল নিউজ