মাদ্রাসার শিশুরা কেমন আছে? - বরিশালের খবর-Barishaler Khobor

বাংলাদেশ, ১১ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, রোববার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১

মাদ্রাসার শিশুরা কেমন আছে? - বরিশালের খবর-Barishaler Khobor

শুক্রবার সরকারি হাসপাতালে ডাক্তার না থাকার পক্ষে স্বাস্থ্য মহাপরিচালকের সাফাই বরিশালে করোনায় ১৮ মাসে ১৩৭৯ জন রোগীর মৃত্যু ডিসেম্বরের মধ্যে দেশের অর্ধেকেরও বেশী মানুষকে টিকার আওতায় আনা হবে : স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের সিনিয়র সচিব নিউইয়র্ক থেকে ওয়াশিংটনের উদ্দেশে শেখ হাসিনা টাকা দিয়ে মানুষের মন কেনা যায় না : আইজিপি দাম কমেছে চাল-চিনির শেবাচিমে শুক্রবার ইনডোর ওয়ার্ডে ডাক্তার থাকে না বাইরে দুই বেলা প্রাইভেট প্রাকটিস প্রবল বেগে আসছে ঘূর্ণিঝড় ‘গুলাব’ এখনও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধের মতো কোনো পরিস্থিতি হয়নি: শিক্ষামন্ত্রী আমরা এখন ভয়াবহ দুঃসময় অতিক্রম করছি : ফখরুল


মাদ্রাসার শিশুরা কেমন আছে?

প্রকাশ: ৩০ আগস্ট, ২০২১ ৯:৩১ : অপরাহ্ণ

মোঃ সায়েম ইসলাম : দেশের শিক্ষাব্যবস্থার একটি বৃহৎ অংশ জূড়ে রয়েছে মাদ্রাসার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান । ইসলামিক আর্দশে প্রতিষ্ঠিত মাদ্রাসার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো হল ধর্মীয় শিক্ষার প্রধান স্থান ।তাইতো এই মাদ্রাসার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গুলোকে বলা হয় ইসলামিক জ্ঞানের ভাণ্ডার । কারন এখানে ধর্ম ও ইসলামিক বিষয় নিয়ে ব্যাপক আলোচনা করা হয়। মুসলিম অধ্যুষিত দেশটির ধর্ম প্রান মুসলমানরা নির্দ্বিধায় , নির্ভয়ে তাদের সন্তান কে মারদাসায় পাঠদানে পাঠান । শুধু ধর্মীয় কারণেই নয় , আর্থিক- অসচ্ছলতার কারণেও অনেক দরিদ্র ও নিম্ন আয়ের পরিবার তাদের সন্তানদের মাদ্রাসায় পাঠিয়ে থাকেন । কারণ, সাধারণ স্কুলগুলোর তুলনায় মাদ্রাসার খরচ অনেক কম।

কিন্তু সাম্প্রতিক কিছু অনাকাঙ্কিত ঘটনা মাদ্রাসার শিক্ষাব্যবস্থাকে প্রশ্নবিহ্ন করে তুলছে। শিশু- শিক্ষার্থীর উপর অমানবিক আচরণ, যৌন নিপীড়ন , শারীরিক শাস্তি , খুন , ধর্ষন এর মত পাশবিক কর্মকান্ড মাদ্রাসাগুলোকে কেন্দ্র করে সংঘটিত হচ্ছে। শিক্ষার্থীদের অভিযোগ সামান্য কিছু ভুল হলেই মাদ্রাসা শিক্ষকদের চরম মারধরের শিকার হতে হয়। মাদ্রাসা শিক্ষকদের নির্যাতন সইতে না পেরে অনেক শিক্ষার্থীর স্কুল থেকে ঝড়ে পরার খবরও পাওয়া যাচ্ছে । বিশেষ করে ছেলে শিশুদের উপর যৌননির্যাতন এর ঘটনা সবাইকে হতবাক করেছে এবং ক্রমশই এর ভয়াবহতা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে।

সোমবার (২৩ আগস্ট) সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরে এক মাদ্রাসা ছাত্রকে জোরপূর্বক বলাৎকারের ঘটনায় আলোকদিয়ার সুবহানিয়া নুরানি হাফিজিয়া মাদ্রাসার শিক্ষক আরিফুল ইসলামকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। অভিযোগ উঠেছে , ১৬ আগস্ট ২য় শ্রেণির এক ছাত্রকে বাথরুমে নিয়ে জোরপূর্বক বলাৎকার করেছে ঐ শিক্ষক। এছাড়াও গত ৯ মার্চ চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে একটি মাদরাসার ৮ বছর বয়সী এক শিশু শিক্ষার্থীকে শারিরিক নির্যাতনের ভিডিও সামাজিক মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে যায়। শিশুটি তাকে দেখতে আসা বাবা-মার সাথে বাড়ি যাওয়ার বায়না ধরে ,এক পর্যায়ে সে বাবা-মার পিছু পিছু মাদ্রাসার মূল ফটকের বাইরে চলে আসে। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে মাদ্রাসার হুজুর শিশুটিকে বেত দিয়ে অনবরত পেটাতে থাকে। আর দেশ ব্যপি আলোড়ন সৃষ্টি করা নুসরাতের কথা কারোই অজানা নয়। মাদ্রাসার শিক্ষকদের যৌন হয়রানির প্রতিবাদ করেছিল নুসরাত , আর তারই জেরে পৃথিবী ছেড়ে যেতে হয়েছে তাঁকে।

‘মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ’ নামে একটি সংগঠন ,জাতীয় ও স্থানীয় পর্যায়ের সংবাদপত্র ও অনলাইন পোর্টালের খবর পর্যালোচনা করে জানতে পেরেছে , শুধু গত বছরের নভেম্বরেই বলাৎকারের শিকার হয়েছে ৪০ জন মাদ্রাসা শিক্ষার্থী, এর মধ্যে মারা গেছে তিনজন, আত্মহত্যা করেছে একজন। বিভিন্ন তথ্যানুসন্ধানের মতে , শহরের মাদ্রাসাগুলোর তুলনায় গ্রামাঞ্চলের মাদ্রাসাগুলোতেই এসব ঘটনা বেশি ঘটছে। মেয়ে শিশু ছাড়া ও ছেলে শিশুর উপর যৌন নির্যাতনের ঘটণা আবাসিক স্কুল ও মাদ্রাসা গুলতে হচ্ছে। ধর্ম প্রান মুসলমানরা এসব প্রতিষ্ঠানের উপর এতটাই ভরসা করেন , যে কোন মূল্যে সন্তানকে ওখানে থাকতে বাধ্য করেন। এসব স্থানে শিশুরা কেমন থাকে, কি আচরনের শিকার হয় তার খুব একটা খবর রাখে না। সংবাদের শিরোনাম হলে আমাদের টনক নড়ে , এর আগে নয়।

বাংলাদেশ শিক্ষা তথ্য ও পরিসংখ্যান ব্যুরোর তথ্যানুযায়ী, দেশে দাখিল মাদ্রাসা রয়েছে ৬ হাজার ৫শ ৫৩টি। ২০১৮ সালের তথ্যানুযায়ী এসব মাদ্রাসায় মোট শিক্ষার্থী ছিল ১৩ লাখ ৫২ হাজার ৫শ ৯০ জন। ইবতেদায়ী পর্যায়ে শিক্ষার্থী ২০ লাখ ২৭ হাজার ৪শ ৫৫ জন। অপরদিকে কওমি মাদ্রাসার পরিসংখ্যানের দিকে তাকালে দেখা যায়, এসব মাদ্রাসায় ইবতেদায়ী পর্যায়ে শিক্ষার্থীর সংখ্যা প্রায় ১৪ লাখ। এখানে পুরুষ শিক্ষার্থী ৭৫ দশমিক ৭২ শতাংশ আর নারী শিক্ষার্থী ২৪ দশমিক ২৮ শতাংশ। অতএব বোঝাই যাচ্ছে মারদ্রাসা গুলতে ছাএ-ছাএীর সংখা কোন অংশেই কম নয়। এসব শিক্ষার্থীদের বিশ্রাম, ঘুম, খেলাধুলা, খাবারের নিশ্চয়তা সহ শতবাগ নিরাপওা প্রদান করা জ্রুরী হয়ে দারিয়েছে।

আমাদের মনে রাখা দরকার, ইসলামে শিক্ষার গুরুত্ব অপরিসীম। কেননা এই শিক্ষা শুধুই জ্ঞানের প্রসারতা এনে দেয় না , উন্নত চরিএ গঠন করতে ও বেশ ভুমিকা রাখে । কিন্তু পরিপূর্ণ জ্ঞান অর্জনের জন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গুলোতে থাকতে হবে সুষ্ঠ , সুন্দর ও ভঁয়হীণ পরিবেশ । প্রতিষ্ঠা করতে হবে শিক্ষার্থী ও শিক্ষকদের মাঝে শ্রদ্ধা , মর্যাদার এক বন্ধু ভাবাপন্ন সম্পর্ক। পাশাপাশি যেকোনো মানের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যৌন হয়রানি, ধর্ষণ ও শারিরিক শাস্তি বন্ধে গ্রহণ করতে হবে জরুরি কার্যকর পদক্ষেপ। শিক্ষার মূল ধারাকে ঠিক রেখে দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে গড়ে তুলতে হবে শিশুর জন্য শতভাগ নিরাপওা।

সকল নিউজ